A PHP Error was encountered

Severity: 8192

Message: Required parameter $limit follows optional parameter $categoryId

Filename: models/SS_home_model.php

Line Number: 129

Backtrace:

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/controllers/SS_shilpi.php
Line: 10
Function: model

File: /home/shikkhashongbad/public_html/index.php
Line: 316
Function: require_once

কোভিডের চতুর্থ ঢেউ সর্বশক্তি দিয়ে আঘাত হেনেছে জার্মানিতে

A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: Undefined variable $ads

Filename: front/body_ad.php

Line Number: 3

Backtrace:

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/views/front/body_ad.php
Line: 3
Function: _error_handler

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/views/front/header_detail.php
Line: 195
Function: include

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/views/front/detail.php
Line: 1
Function: include

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/controllers/SS_shilpi.php
Line: 138
Function: view

File: /home/shikkhashongbad/public_html/index.php
Line: 316
Function: require_once

A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: Attempt to read property "ad_type" on null

Filename: front/body_ad.php

Line Number: 3

Backtrace:

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/views/front/body_ad.php
Line: 3
Function: _error_handler

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/views/front/header_detail.php
Line: 195
Function: include

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/views/front/detail.php
Line: 1
Function: include

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/controllers/SS_shilpi.php
Line: 138
Function: view

File: /home/shikkhashongbad/public_html/index.php
Line: 316
Function: require_once

A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: Undefined variable $ads

Filename: front/body_ad.php

Line Number: 4

Backtrace:

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/views/front/body_ad.php
Line: 4
Function: _error_handler

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/views/front/header_detail.php
Line: 195
Function: include

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/views/front/detail.php
Line: 1
Function: include

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/controllers/SS_shilpi.php
Line: 138
Function: view

File: /home/shikkhashongbad/public_html/index.php
Line: 316
Function: require_once

A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: Attempt to read property "position" on null

Filename: front/body_ad.php

Line Number: 4

Backtrace:

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/views/front/body_ad.php
Line: 4
Function: _error_handler

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/views/front/header_detail.php
Line: 195
Function: include

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/views/front/detail.php
Line: 1
Function: include

File: /home/shikkhashongbad/public_html/application/controllers/SS_shilpi.php
Line: 138
Function: view

File: /home/shikkhashongbad/public_html/index.php
Line: 316
Function: require_once

ঢাকা, বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, , ১৩ জ্বমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪
englishwithyeasir@gmail.com +8801633686868
কোভিড-১৯

কোভিডের চতুর্থ ঢেউ সর্বশক্তি দিয়ে আঘাত হেনেছে জার্মানিতে


প্রকাশ: ২০ নভেম্বর, ২০২১ ১০:১৪ পূর্বাহ্ন



Audio

কোভিডের চতুর্থ ঢেউ সর্বশক্তি দিয়ে আঘাত হেনেছে জার্মানিতে। জার্মানির সংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রক কেন্দ্র ‘রবার্ট কক ইনস্টিটিউট’ (আরকেআই) জানিয়েছে, ২৪ ঘণ্টায় ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়েছে ৬৫ হাজার ৩৭১ জন।

সংক্রমণের সংখ্যার ক্ষেত্রে যা আগের দিনের চেয়ে ১২ হাজার ৫৪৫ বেশি। আক্রান্তের সংখ্যা এর দু’তিন গুণ বেশি হতে পারে বলে জানিয়েছে আরকেআই।

 

বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়েছেন চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেল। সিএনবিসি। ২৪ ঘণ্টায় জার্মানিতে ২৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

দেশটিতে অতিমারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৯৮ হাজার। পরিস্থিতি এখন এমনই, প্রতি এক লাখ বাসিন্দার মধ্যে ৩৩৬.৯ জন অ্যাক্টিভ রোগী।

এক সপ্তাহ আগেও এই সংখ্যা বা হার ছিল ২৪৯.১। ইউরোপের দেশগুলোতে এমনিতেই জনসংখ্যা কম। জার্মানিতে মাত্র ৮ কোটি লোকের বাস।

পশ্চিম ইউরোপে সবচেয়ে কম টিকাকরণ হয়েছে এ দেশে। মাত্র ৬৭ শতাংশ বাসিন্দার টিকাকরণ সম্পূর্ণ হয়েছে। প্রায় ৩৩ শতাংশ এখনো টিকাকরণের বাইরে।

বিশেষজ্ঞদের অনুমান, এ কারণেই সংক্রমণ এই হারে বেড়েছে এই দেশে। মূলত সংক্রমণ ঘটছে করোনার ডেল্টা স্ট্রেনে। এটি এমনিতেই অতিসংক্রামক।

বার্লিনের সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ টোবিয়াস কার্থ বলেন, ‘সংক্রমণ বৃদ্ধির আরও একটি কারণ রয়েছে। এ বছরের শুরুতে যাদের টিকাকরণ সম্পন্ন হয়েছে, বছরের শেষে তাদের অনেকেরই দেখা যাচ্ছে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা চলে গেছে।’

চ্যান্সেলর ম্যার্কেলের কথায়, ‘নাটকীয় অবস্থা, আর কোনো কথা খুঁজে পাচ্ছি না।’ তিনি বলেন, ‘সামনে শীত। এভাবে যদি সংক্রমণ বাড়তে থাকে, হাসপাতালের আইসিইউ ভরে যাবে। তখন আর কিছু করা যাবে না।’

মাঝে সব করোনা-বিধি তুলে দিয়েছিল জার্মান সরকার। এখন নতুন করে করোনা-বিধি জারির কথা ভাবা হচ্ছে। প্রস্তাবিত বিধির মধ্যে রয়েছে, বাসে উঠতে হলেও টিকাকরণের সনদ দেখাতে হবে। জমায়েতে যেতে হলে করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট থাকা আবশ্যিক।

বিনামূল্যে কোভিড পরীক্ষা চালু হবে। অফিসগুলোকে অনুরোধ করা হবে, কর্মীদের বাড়ি থেকে কাজ করানো শুরু করতে। যারা এখনো টিকা নেননি, তাদের ‘ঘরবন্দি’ থাকতে হবে। অর্থাৎ তাদের জন্য ‘লকডাউন’ চালু হবে।

সম্পূর্ণভাবে লকডাউন করার ভাবনাচিন্তাও রয়েছে তাদের। প্রশাসনিক এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ‘দৈনিক সংক্রমণ মারাত্মকভাবে বেড়ে গেছে। যারা টিকা নিয়েছেন, তাদের মাধ্যমেও সংক্রমণ ঘটার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

আরও ভাবনাচিন্তা করে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। হয়তো গোটা দেশকেই ফের লকডাউনে চলে যেতে হতে পারে।’ এর মধ্যে টিকাকরণের গতি বাড়ানো হয়েছে।

আগস্টের পরে এই প্রথম এক দিনে ৫ লাখ জার্মানকে টিকা দেওয়া হয়েছে বৃহস্পতিবার। জার্মানির স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেন্স স্প্যান টুইট করে জানিয়েছেন এ কথা।

তবে এর মধ্যে ৩ লাখ ৮১ হাজার ৫৬০টি বুস্টার ডোজ। স্বাস্থ্যমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেছেন, ‘বুস্টার ডোজই সংক্রমণের চতুর্থ ঢেউকে আটকাতে পারবে।’


   আরও সংবাদ